রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৩৮ অপরাহ্ন

বরিশালে ডেঙ্গু সনাক্ত ৮ জনের

বরিশাল:
ডেঙ্গু জ্বরকে ঘিরে বরিশালে বেশ তৎপরতা চালাচ্ছে সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। এরইমধ্যে নগরবাসীকে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া ভাইরাস জনিত জ্বরে আতংকিত না হয়ে সচেতনতার পাশাপাশি প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। পাশাপাশি গত কয়েকদিন ধরে নগরজুড়ে বেশ জোরেশোরে মশক নিধনে বিভিন্ন কর্মকান্ড পরিচালনা করছে সিটি করপোরেশন। বিসিসি সূত্রে জানাগেছে, বরিশাল নগরের ৩০ টি ওয়ার্ডে ১৫ জন কর্মী মশক নিধনে হ্যান্ড স্প্রে দিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। পাশাপাশি ৪ সদস্যের একটি আলাদা টিম সরকারি অফিস, বস্তি এলাকা, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে মশক নিধনের ওষুধ দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও প্রতিদিন বিকেলে ফগার মেশিনের মাধ্যমে নগরের প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে মশক নিধনের ওষুধ দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া ড্রেনেজ ব্যবস্থা সচলরাখাসহ নগরকে সার্বিক পরিচ্ছন্ন রাখতে প্রায় সাড়ে ৪ শত পরিচ্ছন্নতা কর্মী প্রতিটি ওয়ার্ডে কাজ করে যাচ্ছে। এ বিষয়ে সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা বেলায়েত হাসান বাবলু বলেন, মশক নিধনের জন্য বর্তমান মেয়র বেশ কিছু পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। যারমধ্যে সবথেকে বড় বিষয় হচ্ছে নিয়মিতো মশক নিধনের ওষুধ সরবরাহ করা। আগে বিভিন্ন মাধ্যমে এগুলো সরবরাহ করতে গিয়ে নানান জটিলতা ও বিলম্বের সৃষ্টি হলেও এখন কোম্পানির সাথে সরাসরি চুক্তি করেছেন মেয়র। যাতে গুনগত মান বজায় রেখে সঠিক মূল্যে নিয়মিত ওষুধ সরবরাহ করা যায়। এছাড়া নগরের জনসাধারণকে ডেঙ্গুর বিষয়ে সচেতন করার পাশাপাশি নগর পরিষ্কার রাখা ও নিয়মিতো মশক নিধনের ওষুধ দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, আগামী ২৫ থেকে ৩১ জুলাই সারাদেশের সাথে বরিশাল সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে মশক নিধন কর্মসূচি পালন করা হবে। যে কর্মসূচির উদ্বোধন মেয়র নিজেই করবেন। এদিকে জ্বর হলেই সরকারি হাসপাতাল ও চিকিৎসকের স্মরনাপন্য হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ বাকির হোসেন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে আমরা ৮ জন রোগীকে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হিসেবে সনাক্ত করেছি। যারমধ্যে ২ জন এরইমধ্যে চিকিৎসা নিয়ে আরোগ্য লাভ করে হাসপাতাল ত্যাগ করেছেন। বাকী ৬ জন এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আর মোট এ ৮ রোগীর মধ্যে ১ জন ঢাকা থেকে বরিশালে আসার পরে ডেঙ্গুতে আসারা বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে। তবে এটা এ অঞ্চলে মহামারি আকার ধারণ করেনি। তিনি বলেন, এখন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীদের আমরা মেডিসিন ওয়ার্ডে রেখেই চিকিৎসা দিচ্ছি। সবসময় ফলোআপে রাখছি, বিভিন্ন ধরনের সিমটম রয়েছে এসব রোগীদের। ডেঙ্গুতে চিকিৎসক মারা যাওয়ার বিষয়টি স্মরন করে তিনি বলেন, জনসাধারণের জন্য আমাদের পরামর্শ থাকবে জ্বর হলে ঘরে বসে ওষুধ সেবন না করে, হেলাফেলায় সময় নষ্ট না করে। চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং ডেঙ্গুর লক্ষন দেখা দিলে সরাসরি স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হউন। শেবাচিম হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, এ পর্যন্ত ডেঙ্গু সনাক্ত হওয়া রোগীদের মধ্যে ২১ জুলাই বরিশাল সদরের তাজুল ইসলাম (২৩), বরিশাল নগরের কলেজ এ্যাভিনিউ এলাকার মোয়াজ্জেম রুবেল (২৭), ১৯ জুলাই বরিশালের গৌরনদী উপজেলার ফোরকান (১৯), বানারীপাড়ার গিয়াস উদ্দিন (৩০) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এরআগে ১৬ জুলাই বরিশাল নগরের কাউনিয়া এলাকার মেজবাহ উদ্দিন (২২), বরিশাল নার্সিং কলেজের আফনান আশরাফি (২০) , বাকেরগঞ্জ উপজেলার আরিফুল (৪৮) ওপিরোজপুর জেলার নাজিরপুরের অরুন সুতার (২৮) ভর্তি হয়েছেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2012
Design By MrHostBD