রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:১৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নগরীতে ঢুকছে পানি বরশিালে নদীর পানি বপিদসীমার ওপরে

নগরীতে ঢুকছে পানি বরশিালে নদীর পানি বপিদসীমার ওপরে

রপর্িোট আজকরে বরশিাল:
বরশিালরে র্কীতনখোলা ও মঘেনাসহ আশপাশরে নদ-নদীগুলোতে হঠাৎ করইে পানি বাড়তে শুরু করছে।ে র্কীতনখোলাসহ ছয়টি নদীর পানি বপিদ সীমা অতক্রিম করছে।ে আর বাকি নদীগুলোর পানি বাড়লওে এখনও বপিদ সীমা অতক্রিম করনে।ি ফলে ভরা জোয়াররে সময় প্লাবতি হচ্ছে নদীর তীরর্বতী নন্মিাঞ্চল। আর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে ভাঙন আতঙ্ক দখো দয়িছেে নদী তীররে মানুষরে মধ্য।ে ইতোমধ্যে জলোর হজিলা ও মহেন্দেগিঞ্জ উপজলোর বশেকছিু এলাকায় নদী ভাঙন দখো দয়িছে।ে সূত্রমত,ে ভোলার দৌলতখান পয়ন্টেে মঘেনা নদীর পানি বপিদ সীমা রখো (৩৪১ সন্টেমিটিার) অতক্রিম করে ৫৪ সন্টেমিটিার ওপর দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে পটুয়াখালীর মর্জিাগঞ্জরে পায়রা নদীর পানি বপিদ সীমা রখো (২৮১ সন্টেমিটিার) অতক্রিম করে ১১ সন্টেমিটিার ওপর দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে যদওি আমতলীতে এ নদীর পানি বপিদসীমার ১৩ সন্টেমিটিার নচি দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে ঝালকাঠরি বষিখালী নদীর পানি বপিদ সীমার (২০৮ সন্টেমিটিার) অতক্রিম করে ২৪ সন্টেমিটিার ওপর দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে এছাড়া এ নদীর বরগুনা পয়ন্টেরে পানি বপিদ সীমার (২৮৫ সন্টেমিটিার) রখো অতক্রিম করে এক সন্টেমিটিার ওপর দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে তবে পাথরঘাটা পয়ন্টেে পানি বপিদ সীমার (২৮৫ সন্টেমিটিার) সমান্তরালে প্রবাহতি হচ্ছ।ে পরিোজপুররে বলশ্বের নদীর পানি বপিদ সীমার (২৬৮ সন্টেমিটিার) ছুঁয়ছে।ে এছাড়া তঁেতুলয়িা, আড়য়িাল খাঁ, পালরদী ও সন্ধ্যা নদীসহ বরশিালরে বশেকছিু নদ-নদীর পানি বপিদসীমার নচি দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে পানি উন্নয়ন র্বোডরে পানি বজ্ঞিান শাখার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মাসুম জানান, র্পূণমিার কারণে গত ৩ আগস্ট নদীর পানি কছিুটা বাড়লওে তা আবার নমেে যায়। তবে সটো বপিদ সীমার কাছে আসনে।ি কন্তিু বুধবার সন্ধায় হঠাৎ করইে নদীর পানি বপিদ সীমা অতক্রিম করতে শুরু করছে।ে এরমধ্যে র্সবশষে ওইদনি (বুধবার সন্ধ্যার) জরপি অনুযায়ী বরশিালরে র্কীতনখোলা নদীর পানি বপিদ সীমা (২৫৫ সন্টেমিটিার) অতক্রিম করে চার সন্টেমিটিার ওপর দয়িে প্রবাহতি হচ্ছ।ে একইভাবে হজিলার নয়াভাঙ্গনী নদীর পানওি বপিদ সীমা অতক্রিম করে প্রবাহতি হচ্ছ।ে পানি উন্নয়ন র্বোডরে ওই র্কমর্কতা আরও বলনে, র্বতমান আবহাওয়ার ও নন্মিচাপরে কারণে বাতাসরে গতবিগে বড়েে গছে।ে এ কারণে দক্ষণিাঞ্চলরে নদ-নদীগুলোতে পানরি চাপ বড়েে গয়িে বপিদসীমা অতক্রিম করছ।ে তবে আবহাওয়ার উন্নতরি সাথে সাথে দ্রুত নদীর পানি কমে যাবে বলওে তনিি উল্লখে করনে। অপরদকিে পানি উন্নয়ন র্বোডরে নর্বিাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবু সাইদ বলনে, উত্তরাঞ্চলরে পানি নমেে যতেে শুরু করছে।ে এজন্য দক্ষণিাঞ্চলরে নদীগুলোতে পানরি চাপ একটু বশে।ি তনিি আরও বলনে, র্বষাকাল হওয়ায় বভিন্নি নদীতে ভাঙন দখো দয়িছে।ে এখন যভোবে পানি বাড়ছে তাতে ভাঙনরে তীব্রতা বড়েে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়ছে।ে বশিষে করে পানি নমেে যাওয়ার সময় এ আশঙ্কা বশেি থকে।ে তাই পানি উন্নয়ন র্বোডরে পক্ষ থকেে এ বষিয়ে র্সাবকি প্রস্তুতি নওেয়া রয়ছে।ে ভাঙন কবলতি এলাকা পরর্দিশনরে পাশাপাশি যসেবস্থানে গুরুত্বর্পূণ স্থাপনা রয়ছেে সইেসব এলাকায় ভাঙনরোধরে ব্যবস্থা করা হচ্ছ।ে

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2012
Design By MrHostBD