বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
এডিস মশার লার্ভার সন্ধানে অভিযান

এডিস মশার লার্ভার সন্ধানে অভিযান

রিপোর্ট আজকের বরিশাল :
ডেঙ্গু প্রতিরোধে এডিস মশার লার্ভার সন্ধানে বরিশালে সাতটি বাড়ি ও নির্মানাধিন ভবনে অভিযান চালিয়েছে বরিশাল জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ। এসময় নির্মানাধীন একটি বাড়িতে মশার লার্ভা খুঁজে পান তারা। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ওই বাড়ির নির্মান কাজ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা আব্দুল মালেক নামের এক ব্যক্তিকে দুই হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়েছে। বরিশাল জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিষা আহমেদ এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের এই অভিযান পরিচালিত হয়। ভ্রাম্যমান আদালতের প্রসিকিউশন অফিসার বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের স্যানেটারি ইন্সপেক্টর সৈয়দ এনামুল হক জানান, ডেঙ্গু ও এডিস মশার বংশবিস্তার রোধে শুক্রবার (৩০ আগষ্ট) জুমা নামাজের পরে নগরের অক্সফোর্ড মিশন রোড এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় এডিস মশার লার্ভার সন্ধানে ওই এলাকার মোট ৭টি বাড়ির বিভিন্ন স্থানে তল্লাশী করা হয়। এর মধ্যে অক্সফোর্ড মিশন এলাকার মেজর এমএ জলিল সড়কের একটি নির্মানাধীন বহুতল ভবনে মশার লার্ভা খুঁজে পাওয়া যায়। তবে বাড়ির মালিক পক্ষের কাউকে সেখানে পাওয়া যায়নি। তাই ওই ভবনে নির্মান কাজ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা আব্দুল মালেক নামের ব্যক্তিকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এদিকে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেসডিকেল কলেজ হাসাপতালে শুক্রবার(৩০ আগষ্ট) চিকিৎসাধীন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে কিছুটা কমেছে। তবে বিগত ২৪ ঘন্টায় নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে একজন বেড়েছে। হাসপাতালের রেকর্ড রুমের তথ্যানুযায়ী, শুক্রবার শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১৪৭জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগী। গতকাল চিকিৎসাধীন ছিলেন ১৫৫জন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৪১ জন ডেঙ্গু রোগী। এর আগের ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছিলো ৪০জন। একই সময়ে চিকিৎসায় সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল থেকে বিদায় নিয়েছেন ৪৯জন। এর আগের ২৪ ঘন্টায় বিদায় নিয়েছিলো ২৮জন। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হওয়া ৪১ জনের মধ্যে পুরুষ ২২জন, নারী ১২জন এবং ৭জন শিশু। একই সময়ে বিদায় নেওয়া ৪৯ জনের মধ্যে পুরুষ ২৩জন, নারী ১৫জন এবং ১১জন শিশু। গত ১৬ জুলাই থেকে আজ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১ হাজার ৮০১জন। একই সময়ে চিকিৎসায় সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১ হাজার ৬৪৮জন। এই সময়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ৬জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2012
Design By MrHostBD