বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নগরীর মথুরানাথ পাবলিক স্কুল এর ৫৭তম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। বরিশালে বিভাগীয় বন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মানববন্ধন নগরীর আলেকান্দা কাজীপাড়া এলাকায় এক প্রবাসীর ক্রয় করা জমির গেট ভাংচুর করছে প্রতিপক্ষরা। বছরের প্রথমদিনে সরকারের দেওয়া বিনামূল্যের বই শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরন শান্তি প্রিয় যুবসমাজ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে , অসহায় মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরন। বাংলাদেশ মেরিন একাডেমি বরিশাল এর ২য় ব্যাচের ক্যাডেটদের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত। আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী আমার কোন দল নেই -সালাউদ্দিন রিপন বরিশাল বিভাগে নূরানী ৩য় শ্রেণীর সমাপনী পরীক্ষার ফল প্রকাশ আমি গরীবের বন্ধু সারাজীবনই গরীবের সেবা করতে চাই,বানীতে সালাউদ্দিন রিপন, কমিটির অধীনে নিয়োগপ্রাপ্ত ইন্ডেক্সধারি শিক্ষকদের বদলি নীতিমালায় অন্তর্ভুক্তির দাবি
একটি অ্যাম্বুলেন্সে ২২টি মরদেহ ভারতে

একটি অ্যাম্বুলেন্সে ২২টি মরদেহ ভারতে

একটি অ্যাম্বুলেন্সে ২২টি মরদেহ ভারতে
একটি অ্যাম্বুলেন্সে ২২টি মরদেহ ভারতে

ডেস্ক:

হাসপাতালের মর্গের বাইরে রাখা আছে অ্যাম্বুলেন্স। তাতে করোনায় মৃতদের দেহ চাপিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে সৎকারের জন্য। জায়গা নেই, তবু গাদাগাদি করে একটি অ্যাম্বুলেন্সেই তোলা হয়েছে ২২টি মরদেহ। ভয়াবহ এই চিত্র দেখা গেছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে। রাজ্যটির বিড জেলার অম্বেজোগাইয়ে স্বামী রামানন্দ তীর্থ মরাঠাওয়াড়া সরকারি মেডিকেল কলেজের ঘটনা এটি। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে , মরদেহ এভাবে তোলার সময় সেখানে উপস্থিত ছিল পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন মৃতদের স্বজনরা। তাদের অভিযোগ, তারা তাদের প্রিয়জনের মরদেহ এভাবে অ্যাম্বুলেন্সে তোলার ছবি তুলতে গেলে তাদের মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়। তারপর তা রেখে দেয় পুলিশ। পরে মরদেহগুলো সৎকার হওয়ার পরই মোবাইল ফোন ফেরত দেওয়া হয়। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর বিড জেলা প্রশাসক রবীন্দ্র জগতপ স্থানীয় এক সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‌‘অম্বেজোগাইয়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে এই ঘটনা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদি কারো দোষ থাকে, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ হাসপাতালের ডিন শিবাজি সুকরে বলেন, ‘মরদেহ সৎকারের জন্য নিতে মাত্র দু’টি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। আর যখন মারা যায় তখন স্থানীয় প্রশাসনের হাতে মরদেহ তুলে দেওয়া অবধি আমাদের দায়িত্ব। তারা কীভাবে মরদেহ নিয়ে যাবে, তা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই।’ উল্লেখ্য, দ্বিতীয় দফায় মহামারি করোনার প্রকোপে ভারত বিপর্যস্ত। দেশটির স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। অনেক স্থানে তো রোগী হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। অস্থায়ী শ্মশানে দিনরাত জ্বলছে চিতা। আর দেশটিতে সবচেয়ে বাজে অবস্থা মহারাষ্ট্রের।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2012
Design By MrHostBD